Thursday , March 21 2019
সর্বশেষ
Home / প্রথম পাতা / ২০১৭-১৮ অর্থবছরে মাছ রপ্তানি করে আয় ৪৩০৯.৯৪ কোটি টাকা

২০১৭-১৮ অর্থবছরে মাছ রপ্তানি করে আয় ৪৩০৯.৯৪ কোটি টাকা

এগ্রিভিউ নিউজ ডেস্ক: মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী মো. আশরাফ আলী খান খসরু বলেছেন, গত অর্থবছরে (২০১৭-১৮) বাংলাদেশ ৬৮ হাজার ৯৩৫ মেট্রিক টন মৎস্য ও মৎস্য পণ্য রপ্তানির মাধ্যমে ৪ হাজার ৩০৯ কোটি ৯৪ লাখ টাকা আয় করেছে। সোমবার (১১ মার্চ) সাংসদ মো. আছলাম হোসেন সওদাগরের (কুড়িগ্রাম-১) এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, মৎস্য ও মৎস্য পণ্য বাংলাদেশের রপ্তানির অন্যতম প্রধান খাত। বাংলাদেশ থেকে প্রধানত গলদা, বাগদা, হরিণাসহ বিভিন্ন জাতের চিংড়ি, স্বাদু পানির মাছের মধ্যে কার্প জাতীয় মাছ রুই, কাতলা, মৃগেল ইত্যাদি, ক্যাটফিস জাতীয় মাছ আইর, টেংরা, বোয়াল, পাবদা ইত্যাদি, কৈ, কুচিয়া প্রভৃতি, সামুদ্রিক মাছের মধ্যে ভেটকী, দাতিনা, রূপচাদা, কাটল ফিস, কাঁকড়া, ইত্যাদি রপ্তানি করা হয়। এছাড়া শুটকী মাছ, হাঙ্গরের পাখনা, মাছের আঁইশ এবং চিংড়ির খোলসও রপ্তানি করা হয়ে থাকে।

সংসদে বক্তব্য রাখছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী

তিনি আরো বলেন, ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) দেশসমূহ, যুক্তরাষ্ট্র, জাপান, রাশিয়া, চীন, ভারত, ভিয়েতনাম, মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, সংযুক্ত আরব আমিরাত, অ্যাংগোলা, বাহরাইন, কানাডা, হংকং, জর্ডান, দক্ষিণ কোরিয়া, নেপাল, মেক্সিকো, মালদ্বীপ, কুয়েত, মরক্কো, সিঙ্গাপুর, কাতার, মৌরিসাস, মায়ানমার, ইউক্রেনসহ বিশ্বের ৫০টিরও অধিক দেশে বাংলাদেশের মৎস্য ও মৎস্যপণ্য রপ্তানি করা হয়ে থাকে। এর মধ্যে ইউরোপীয় ইউনিয়নের দেশসমূহ বাংলাদেশের মৎস্য ও মৎস্য পণ্যের প্রধান বাজার।

About Anik Ahmed

Check Also

শেকৃবি উপাচার্য ও শেকৃবিসাসের শুভেচ্ছা বিনিময়

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক, শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় : শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শেকৃবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. কামাল উদ্দিন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *