Wednesday , February 20 2019
সর্বশেষ
Home / প্রথম পাতা / মাছ চাষ করে সফলতার হাসি যশোরের শার্শার মৎস্যচাষীদের মুখে

মাছ চাষ করে সফলতার হাসি যশোরের শার্শার মৎস্যচাষীদের মুখে

মাছ চাষে দিনদিন এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। বিশেষ করে মিঠাপানির মাছ উৎপাদনে বাংলাদেশের উত্তরোত্তর উন্নতি চোখে পড়ার মত।যশোরের শার্শা উপজেলায় চাহিদার তিন গুণ বেশি মাছ উৎপাদন হচ্ছে বলে মৎস্য কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা আবুল হাসান বলেন, স্থানীয় চাহিদা মেটানোর পর অতিরিক্ত মাছ অন্যান্য এলাকায় পাঠানো হয়।

মাছ চাষ করে এ উপজেলায় সাড়ে পাঁচ হাজার পরিবার সচ্ছল হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, আর এতে কর্মসংস্থান হয়েছে আরও ৫০ হাজার মানুষের।

“উপজেলার ১৫টি বাঁওড়, ২৭১টি ঘের, ১০টি বিল ও ছয় হাজার ৬১৯টি পুকুর মিলে মোট ছয় হাজার ২৩৯ হেক্টর জলাশয়ে আধুনিক পদ্ধতিতে এই মাছ চাষ করা হচ্ছে। এখানে বছরে ২২ হাজার ৪৮৫ মেট্রিকটন উৎপাদন করা হয়। কিন্তু স্থানীয় চাহিদা মাত্র সাত হাজার ৫৭২ মেট্রিকটন।”
মাছ চাষ বেড়ে যাওয়ায় উৎপাদন, বাজারজাতকরণ, পরিবহন ও বিপণন বিভাগে প্রায় ৫০ হাজার মানুষের কর্মসংস্থান হয়েছে বলে তিনি জানান।

এই এলাকায় প্রধানত দেশি রুই-কাতলার পাশাপাশি দ্রুত বর্ধনশীল সিলভার কার্প, মিনার কার্প, জাপানি রুই, গ্লাস কার্প, মাগুর, কই, পাঙ্গাস, নাইলোটিকা, তেলাপিয়া, বাটা মাছ চাষ হয় জানিয়ে তিনি বলেন, তবে ইদানীং বিলুপ্তপ্রায় পাবদা, শিং, মাগুর ও গুলশা মাছের চাষে লাভ বেশি হওয়ায় সেদিকে ঝুঁকছেন চাষিরা।

উপজেলার বড় বসন্তপুর গ্রামের কে এম ফিরোজ মামুন ২০১০ সাল থেকে নিজ গ্রামে মাছ চাষ করছেন।

ফিরোজ প্রতিবেদককে বলেন, “আমি ১৫ বিঘার চারটি পুকুরে মাছ চাষ করছি। মাসে সাত হাজার টাকা বেতনে দুইজনকে সার্বক্ষণিক দেখাশুনার জন্য রেখেছি। চারটি পুকুরে মাছের পোনা, খাদ্য, ওষুধ ও তদারকে গত বছর খরচ হয়েছে প্রায় ১২ লাখ টাকা। তবে মাছ বিক্রি করে পেয়েছি প্রায় ২৩ লাখ টাকা। আমার খামারে আছে পাবদা, শিং, মাগুর ও গুলশা।”

এছাড়া পুকুর পাড়ে সবজি চাষ করছেন অনেকে।
আমলাই গ্রামের ছাফিয়া খাতুন বলেন, “আমি ৯৫ শতকে মাছ চাষ করে সংসারে সুখ এনেছি। এছাড়া সবজি বেঁচেও পাচ্ছি বেশ টাকা।”

সূত্রঃবিডিনিউজ২৪.কম

About Saleha Khatun Ripta

Check Also

রাসায়নিক দূষণ মুক্ত নিরাপদ ব্রয়লার উৎপাদনে খামারীদের সাথে ক্যাব’র তৃণমূল সভা অনুষ্ঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ব্রয়লার মুরগি উৎপাদনে জীব ধারনামুলক নিরাপত্তা, কাঠামোগত নিরাপত্তা ও প্রায়োগিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *