Wednesday , November 21 2018
সর্বশেষ
Home / কৃষি বিভাগ / উন্নয়ন মেলায় মেহেরপুরে প্রথম স্থান অধিকার করেছে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর

উন্নয়ন মেলায় মেহেরপুরে প্রথম স্থান অধিকার করেছে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর

কৃষিবিদ ড. মো: আখতারুজ্জামান: গতকাল (৬ অক্টোবর) পুরস্কার বিতরণের মাধ্যমে শেষ হলো তিন দিনব্যাপী মেহেরপুর জেলার চতুর্থ জাতীয় উন্নয়ন মেলা, ২০১৮। সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন মেহেরপুর-১ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপক ফরহাদ হোসেন মহোদয়।”উন্নয়নের অভিযাত্রায় অদম্য বাংলাদেশ” প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে ৪র্থ জাতীয় উন্নয়ন মেলা শুরু হয়েছিল গত ৪ অক্টোবর। মেলাতে বিভিন্ন দপ্তর পরিদপ্তরের ৬৬ টি স্টল সাজানো হয়েছিল। যে যার মত করে তাদের স্ব স্ব শ্রম মেধা ও মননশীলতার সর্বোচ্চ প্রয়োগ করে তাদের স্টলকে নান্দনিক করতে চেষ্টা করেছিলেন। কেউ কেউ তাদের স্টলকে আকর্ষণীয় করতে অপরিমিত অর্থ ব্যয় করতেও কার্পণ্য করেননি; তবে চূড়ান্ত বিচার এবং মূল্যায়নে প্রকৃত উন্নয়ন চিত্রটিই প্রাধান্য পেয়েছে।

আয়তনিক বিবেচনায় মেহেরপুর জেলা ছোট হলেও বহুধা অঁচলে মেহেরপুরের সমৃদ্ধি ও সফলতা অনেক। স্বাধীন বাংলার সূর্য অস্তমিত ও উদয়ের রেকর্ডটি রয়েছে মেহেরপুরেই। মেহেরপুরের মাটি জলবায়ু কৃষির উন্নয়নের অন্যতম অনুসঙ্গ। মেহেরপুরের সাধারণ মানুষগুলোও অনেক বেশী ভাল এবং বন্ধুভাবাপন্ন।

মেহেরপুরের কৃষি, সেতো আরেক সমৃদ্ধির সোপান। সুজলা সুফলা শস্য শ্যামলা বাংলা মায়ের অপরূপ রূপচ্ছবির সবই রয়েছে মেহেরপুরে। গোটা মেহেরপুরের মাঠ-ঘাট, পথ-প্রান্তর যেন সৃষ্টিকর্তার অপার মহিমা দিয়ে সাজানো। এ যেন প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য বেষ্টিত গোটা বাংলাদেশের মিনি রেপলিকা। শীত, গ্রীষ্ম, বর্ষা যেকোনো অর্তবে মেহেরপুরের পদচারণায় মুগ্ধ হন ভ্রমণ পিয়াসী মানুষ। দীপ্ত পদচারণায় মুখরিত হয়ে দ্রুত সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাচ্ছে মেহেরপুরের কৃষি। সেখানে নিরলস সেবা দিয়ে চলেছে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর।

জাতীয় কৃষি উন্নয়নের সাথে পাল্লা দিয়ে বিগত এক দশকে মেহেরপুর কৃষির সফলতা অনেক অনেক; যা ডকুমেন্টারী চালচিত্র সহ সকল প্রযুক্তি, ফল ফসলের জাত এবং সব ধরনের কৃষি সেবার সবটুকু মেলার স্টলে তুলে ধরার সর্বোচ্চ চেষ্টা করা হয়েছিল। যে দর্শক নন্দিত ভিডিও ডকুমেন্টারী তৈরি করা হয়েছিল সেটাকে ছোট করে দেখার সুযোগ কম। বিগত এক মাস এ কাজে আমি ও আমার টিম মনপ্রাণ দিয়ে কাজ করেছি।

বলতে দ্বিধা নেই, আমাদের কাজে যে টিম স্পিরিট ছিল সেটার তুলনা দেয়া ভার। টিমের প্রতিটি সদস্য তাঁদের স্ব স্ব কাজ হাসিমুখে করেছেন; তাৎক্ষণিক ব্যয় নির্বাহ করেছেন নিজের পকেট থেকেই। তাই আমার টিমের প্রত্যোক সদস্যকে আন্তরিক অভিনন্দন জানাই। এ কৃতিত্ব আমার একার নয়! এই বিরল সম্মানের সম অংশীদার মেহেরপুর জেলা কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের প্রতিটি কর্মকর্তা ও কর্মচারীর।

এমন সম্মানে ভূষিত হবার জন্যে আমি জেলার কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অধিকর্তা হিসেবে মুগ্ধ ও অভিভূত। বিগত একটা সপ্তাহ কার্যত আমরা নির্ঘুম কাটিয়েছি; শয়নে স্বপনে জাগরণে সর্বদাই আমাদের ধ্যান জ্ঞানে ছিল উন্নয়ন মেলার সর্বোচ্চ উৎকর্ষ সাধন। আমরা সেটা পেরেছি, প্রথম স্থান অধিকার করবার মাঝ দিয়ে।

আমি কৃতজ্ঞতা জানাই মূল্যায়ন কমিটিকে, কারণ তাঁরা সর্বোচ্চ নিরপেক্ষতার সাথেই মূল্যায়ন করেছেন। শুধু চাকচিক্য, জৌলুস আর সৌন্দর্য্যপ্রিয়তা কোন কাজে আসেনি। সবশেষে আমার কর্মরত জেলার কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের সকল কর্মকর্তা কর্মচারীদের করকমলে আমার আজকের এই পুরস্কার উৎসর্গ করে তাঁদের প্রতি আমার আন্তরিক মোবারকবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।

উপসংহারে এবারের উন্নয়ন মেলার মূল প্রতিপাদ্যের আদলে আমিও বলতে চাই:
“উন্নয়নের অভিযাত্রায় বাংলার কৃষি”
“উন্নয়নের অভিযাত্রায় মেহেরপুরের সমৃদ্ধ কৃষি”

লেখক: উপপরিচালক, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, মেহেরপুর।

About Anik Ahmed

Check Also

ডেইরী শিল্পে সফলতার অপর নাম “কৃষিবিদ ডেইরী ফার্ম”

অনিক অাহমেদ, সাভার, ঢাকা: দেশের ক্রমবর্ধমান মানুষের প্রাণিজ অামিষের চাহিদা পূরণে ব্যাপক ভূমিকা পালন করে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *