Tuesday , February 19 2019
সর্বশেষ
Home / Uncategorized / বিশ্ব শিক্ষক দিবস

বিশ্ব শিক্ষক দিবস

মো. শাহীন সরদার

শিক্ষক বা গুরু বা পীর অনেক ভারী কথা অনেক মহান ও শ্রদ্ধার ব্যক্তি তারা। এটা শুধু শিক্ষকতা পেশায় নিয়োজিত হলেই তারাই শিক্ষক বা শ্রদ্ধার পাত্র হয়ে যান না। যারা জীবনের পথকে পরিবর্তন করে দেয়, যারা অাদর্শ হিসেবে গড়ে ওঠতে শিখায় তারাই সেই শিক্ষক। শিক্ষকের সংজ্ঞা বলতে অামি এটাকেই বুঝি, দোয়া বদ-দুয়া বলতে অামি এদের কথাই বুঝি। এর বাদে যারা চাকরিজীবী শিক্ষক তাদের দোয়া বদ-দোয়া বলতে অামার কাছে কিছু নেই। তাদের (শিক্ষকদের) ঋণ কখনো শোধরানো যায় না, তাদের শ্রদ্ধা জোর করে পেতে হয় না, এমনিতেই মাথা নুইয়ে অাসে। একটা জীবনে প্রতিষ্ঠিত ও অার্দশ হয়ে ওঠতে শত প্রতিকূলতা ও বৈরী পরিবেশের মাঝেও কারো না কারো অবদান থাকে যেই শক্তিবলেই সে চলার পথ খুজে পায়। যেহেতু অাজও সফলতার পথিমধ্যে অাছি শেষ চূড়ায় অাসি নি তবুও যতটুকু অর্জন করেছি এই ক্ষুদ্র জীবনে এর পিছনে রয়েছে অনেকের ভালোবাসা, অনুপ্রেরণা, সহায়তায়। তাদের ঋণ, ভালোবাসা কখনো শুধরানো সম্ভব নয় তবে হ্রদয়ের মণিকোঠায় তারা থাকবে অবিচল। অজপাড়া গাঁ থেকে অাসা,শত নিন্দুকের কথা, শত বাধা, প্রতিকূলতা পেরিয়ে অাজকের এই পথে যাদের অবদান অন্যান্য তারাই অামার শিক্ষক, তারাই অামার গুরুজন, তারাই অামার শ্রদ্ধাভাজন । তাই শত প্রতিবন্ধকতা কখনো অামাকে পিছনে অাঁকড়ে রাখতে পারে নি ইনশাআল্লাহ ভবিষ্যতেও পারবে না, ইচ্ছা, স্বপ্ন ও সৃষ্টিকর্তা চাইলে মানুষ তার কাঙ্খিত লক্ষ্য পৌঁছায়ই, কেউ সাহায্য করুক বা না করুক পথ পার হয়ই, শুধু মনে থেকে যায় অবহেলাগুলিই। অামার শিক্ষক শ্রদ্ধাভাজন কয়েকজনের নাম উল্লেখ করলে প্রথমে অামার পিতা, মাতা এরপর ছোট ফুফুু😍, বড় ফুফু, মেজ ফুফু। বিপ্লব কাকা, বিষ্ণু দাদু। স্কুল জীবনে কাদিরদী স্কুল দশরত😍 স্যার, কাদিরদী স্কুল ইকবল স্যার, কাদীরদী প্রাইমারী দেলোয়ার স্যার, সম্মীলনী শ্যামল স্যার, এসএমান্নান রঞ্জন স্যার। বড় ভাই খুবি অালমগীর ভাই😍😍, খুমেক কৃষ্ণ দা😍। কলেজ শ্যামল স্যার, অসীম স্যার। বিশ্ববিদ্যালয়ে চান্স পেতে রাবি রিয়াদ ভাই😍😍, রাবি মুন্না ভাই😍, রাবি মাহাবুব ভাই😍। এরপর বিশ্ববিদ্যালয় জীবন এখানে যেহেতু চলমান তাই কাউকে স্পেসিফিক করলাম না শিক্ষকদের দু একজন হবে, সাংবাদিক সমিতির বেশিরভাগ, সাংবাদিকতার সাথে জড়িত ব্যক্তিবর্গ, সম্পাদক,,তবে বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির অামার সময়ে দেখা ও পাওয়া সকল বড় ভাইই ছিলো অামার অনুপ্রেরণা, অার্দশ। এরাই অামার শিক্ষক, গুরুজন, শ্রদ্ধার ব্যক্তি……

মো. শাহীন সরদার

শিক্ষার্থী ও সাংবাদিক

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়।

About Shahin Sardar

Check Also

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বাকৃবি ছাত্রলীগের স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি

শাহীন সরদার, বাকৃবি প্রতিনিধি ছাত্রলীগের ৭১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচির আয়োজন করেছে বাংলাদেশ কৃষি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *