Wednesday , November 21 2018
সর্বশেষ
Home / প্রথম পাতা / প্রাকৃতিক কীটনাশক হিসেবে পেঁপে পাতার অসাধারণ কার্যকারিতা সম্পর্কে জানেন কী?

প্রাকৃতিক কীটনাশক হিসেবে পেঁপে পাতার অসাধারণ কার্যকারিতা সম্পর্কে জানেন কী?

ছালেহা খাতুন রিপ্তা, খুবি: রাসায়নিক সার, কীটনাশক ইত্যাদি মাত্রাতিরিক্ত ব্যবহারের কারনে বর্তমানে অনেকেই বাজার থেকে টাটকা সবজি, ফলমূল কিনে খেতে সংকোচ বোধ করেন। এসব রাসায়নিক পদার্থের অনিয়ন্ত্রিত ব্যবহারের কারনে একদিকে যেমন মাটির স্বাভাবিক গুনাগুন নষ্ট হচ্ছে, সেই সাথে পরিবেশের ভারসাম্যও আজ হুমকির সম্মুখীন। এ সমস্যার এক কার্যকরী সমাধান হতে পারে পেঁপে পাতা।

আমাদের শহরে ও গ্রামে বাসা বাড়ির আঙিনায় যে গাছটি প্রায়শই দেখা যায় পেঁপে গাছ, বৈজ্ঞানিক নাম(Carica papaya)। পেঁপে ভিটামিন ও পুষ্টিতে ভরপুর একটি জনপ্রিয় ফল । তবে এই পেঁপে পাতার অসাধারণ গুনাগুন আমাদের অনেকের কাছেই অজানা।

পেঁপে পাতার নির্যাস প্রাকৃতিক কীটনাশক হিসেবে অত্যন্ত কার্যকর। সাম্প্রতিক গবেষণায় উঠে এসেছে এসব তথ্য। পেঁপের পাতায় রয়েছে প্যাপেইন যা একটি একটিভ ইনগ্রেডিয়েন্ট। এছাড়াও রয়েছে এলকালয়েডস, সায়ানোজেনিক গ্লাইকোসাইডস, সায়ানাইড, থায়োসায়ানেট ফ্লাভোনল, ট্যনিন ইত্যাদি, যা বিভিন্ন উদ্ভিদভোজী পতঙ্গের জন্য বিষাক্ত।

পেঁপের পাতা দিয়ে তৈরি প্রাকৃতিক কীটনাশক এফিড,ফ্রুট ফ্লাই, টারমাইট এর মত ক্ষুদ্র পোকাগুলো বিনাশ করে। একইসাথে ডিম ও লার্ভা ধ্বংস করে পতঙ্গের জীবনচক্র বিনষ্ট করে। এটি নেমাটোড, মোসাইক ভাইরাস, পাউডার মিল্ডিউ এর মত জীবাণু ধ্বংস করতে সক্ষম। এনোফিলিস মশার লার্ভা ও পিউপা ধ্বংস করে ম্যালেরিয়া প্রতিরোধ করে। এমনকি এডিস মশা দমন করার মাধ্যমে চিকুনগুনিয়া ও ডেঙ্গু প্রতিরোধেও এটি কার্যকর।


এটি যেভাবে কাজ করে :

• পোকার ডিম ও লার্ভা ধ্বংস করে।
• পতঙ্গের খাদ্য গ্রহণের প্রতি আসক্তি কমিয়ে দেয়।
• পতঙ্গের শ্বসনকে ব্যাহত করে।
• পতঙ্গের স্বাভাবিক বাস্তুতন্ত্রকে ব্যাহত করে।
• স্ত্রী পোকার প্রজননে বাধা দেয়।
• জীবনচক্রের বিভিন্ন ধাপে খোলস মোচনে বাধা দেয়।
• রোগ সৃষ্টিকারী পতঙ্গ দমন করে।
• সর্বোপরি পতঙ্গ প্রতিরোধ করে।

যেভাবে প্রস্তুত করবেন :
• প্রথমে ১কেজি পাতা সংগ্রহ করতে হবে।
• পিষে নরম করতে হবে।
• এবার এতে ১০ লিটার পানি, ২চা চামচ কেরোসিন এবং ৩০ গ্রাম ডিটার্জেন্ট ভালোভাবে মেশাতে হবে।
• এভাবে সারারাত মিশ্রণটি রেখে দিতে হবে৷
• পরদিন একটি পাতলা কাপড় অথবা ছাঁকনি দিয়ে দ্রবণটি ছেঁকে নিলেই তৈরি হয়ে যাবে প্রাকৃতিক কীটনাশক।

 

ব্যবহারের সুবিধা :
• এটি তৈরি করা অত্যন্ত সহজ এবং কৃষক নিজেই প্রস্তুত করতে পারেন।
• উপাদান গুলো প্রাকৃতিক এবং সস্তা।
• এটি পরিবেশ বান্ধব। এর ব্যবহারে পরিবেশের ভারসাম্য অক্ষুণ্ণ থাকে।
• মানুষসহ পশুপাখির জন্য তুলনামূলক নিরাপদ।
• ফসলে কোন প্রকার বিষাক্ততা ঘটায় না।
• কোন রাসায়নিক ব্যবহারকারী হয়না বলে এটি প্রয়োগ করলে সবজি ও ফলমূল সু পুষ্ট হয়। • সর্বোপরি ফসলের উৎপাদন খরচ হ্রাস পায়।

About Nur E Kutubul Alam

Agri Journalist | Future Farmer | Student

Check Also

ডেইরী শিল্পে সফলতার অপর নাম “কৃষিবিদ ডেইরী ফার্ম”

অনিক অাহমেদ, সাভার, ঢাকা: দেশের ক্রমবর্ধমান মানুষের প্রাণিজ অামিষের চাহিদা পূরণে ব্যাপক ভূমিকা পালন করে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *