Friday , October 19 2018
সর্বশেষ
Home / ক্যাম্পাস / বাকৃবিতে ২ জন সাময়িক বহিস্কার ও ৬ জন শোকজ

বাকৃবিতে ২ জন সাময়িক বহিস্কার ও ৬ জন শোকজ

বাকৃবি প্রতিনিধি: বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) ২ জনকে সাময়িক বহিস্কার এবং ছয় জনকে শোকজ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। গত সোমবার উপাচার্যের কার্যালয়ে হট্টগোলের ঘটনায় বুধবার ভিসির আদেশে রেজিস্ট্রার স্বাক্ষরিত ওই নোটিশে আগামী ৭ দিনের মধ্যে উপযুক্ত উত্তর দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এদিকে এ ঘটনায় আন্দোলনের সাথে একাত্বতা প্রকাশ না করায় হামলার শিকার হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন কারিগরি কর্মচারী পরিষদের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক।

সাময়িক বহিস্কৃতরা হলেন শিক্ষা বিষয়ক শাখার কর্মচারী ও ৩য় শ্রেণীর সাধারণ সম্পাদক মো. মোশারফ হোসেন, কর্মকর্তা পরিষদের যুগ্ন সম্পাদক জিয়াউর রহমান টিটু। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয় সম্প্রসারণ কেন্দ্রের সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ আবুল বাসার আমজাদ, ডেপুটি লাইব্রেরিয়ান মো. খাইরুল আলম নান্নু, মো. আবদুল বাতেন, ক্রীড়া প্রশিক্ষণ বিভাগের মোহাম্মদ মোস্তাইন কবীর সোহেল, সংস্থাপন শাখার সহকারী রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ আশিকুল আলম বাচ্চু ও খামার ব্যবস্থাপনা শাখার এডিশনাল রেজিস্ট্রার ড. মো. হেলাল উদ্দীনকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয় প্রশাসন।

নোটিশে বলা হয়, গত সোমবার বেলা সোয়া ১২টার দিকে উপাচার্যের অনুমতি ছাড়াই হঠাত করে উপাচার্যের কার্যালয়ে প্রবেশ করে ছাত্র বিষয়ক উপদেষ্টা, প্রোক্টর ডিন কাউন্সিলের আহ্বায়ক , রেজিস্টার ও সাংবাদিকদের সামনে উপাচার্য ও উপ-উপাচার্যকে লক্ষ করে আঙ্গুল উচিয়ে অকথ্য ভাষায় কটুক্তি করে এবং অশালীন শারীরিক অঙ্গভঙ্গি করে। এতে করে বিশ্ববিদ্যালয়ের উচ্চ পর্যায়ের প্রাশাসনিক কার্যক্রম ব্যহত হয় এবং উপাচার্যের সাথে দূর্ব্যবহার করে যা বিশ্ববিদ্যালয়েল চাকুরী সংবিধির সুস্পষ্ট লঙ্গন ও গুরুতর অপরাধ।

এদিকে প্রশাসনের কারণ দর্শানোর নোটিশ পাওয়ার পর অফিসার পরিষদের নেতারা মিছিল নিয়ে হিসাব সংরক্ষণ শাখা, প্রকৌশল শাখা, পরিকল্পনা ও উন্নয়ন শাখায় তালা ঝুলিয়ে দেয়। প্রশাসন ভবনে পুলিশ মোতায়েন থাকায় তালা দিতে ব্যর্থ হয়। কর্মকর্তাদের সাথে একাত্বতা প্রকাশ করে ক্যাম্পাসে মিছিল করে কর্মচারীরা। এসময় তারা প্রশাসনের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরনে শ্লোগান দিতে থাকে। এদিকে কারিগরি কর্মচারী পরিষদের পক্ষ থেকে আন্দোলনে সাথে একাত্বতা প্রকাশ না করায় হামলা করে ৩য় ও চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারীরা। এবিষয়ে কারিগরি কর্মচারী পরিষদের সভাপতি মো. আবদুল মোতালেব বলেন, আমরা চার দফা দাবিতে ঐক্যবদ্ধ হয়েছিলাম। গত ১৭ সেপ্টেম্বর আমাদের রেখেই ৩য় শ্রেণীর সাধারণ সম্পাদক মো. মোশারফ হোসেন কর্মকর্তাদের সাথে ভিসি সচিবালয়ে ঢুকে ভিসির সাথে বেয়াদবি করে। পরবর্তীতে তাকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শোকজ করলে আমাকে ও আমার সংগঠনের সকলকে তাদের সাথে আন্দোলনে যেতে বলে। যোগ না দিলে পরে ৩য় ও ৪র্থ শ্রেনী মিলে আমাদের সংগঠনে হামলা করে, চেয়ার ভাঙে। এ ঘটনায় আমি ও আমার সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সুলতান আহমেদ আহত হয়ে বর্তমানে ময়মনসিংহ হাসপাতালে ভর্তি ।

About Editor

Check Also

ওজন কমায় ধনে পাতার রস

এগ্রিভিউ হেলথ ডেস্ক: খাবারের স্বাদ বাড়ানোর অনেক নামের একটি ধনে পাতা। রান্নার স্বাদ বাড়াতে ধনে পাতার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *