Thursday , March 21 2019
সর্বশেষ
Home / প্রথম পাতা / ২৯তম আন্তর্জাতিক জীববিজ্ঞান অলিম্পিয়াডে বাংলাদেশের প্রথমবারের মত ব্রোঞ্জ পদক জয়

২৯তম আন্তর্জাতিক জীববিজ্ঞান অলিম্পিয়াডে বাংলাদেশের প্রথমবারের মত ব্রোঞ্জ পদক জয়

আব্দুর রহমান রাফিঃ ২৬ জানুয়ারি – ১৬ মার্চ পর্যন্ত ‘প্রাণের টানে পারস্যে’ (Pursuing life in Persia) স্লোগান সামনে রেখে সারা দেশজুড়ে বসেছিল দেশে জীববিজ্ঞানের সবচেয়ে বড় আসর “জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর জীববিজ্ঞান উৎসব’’ । সারা দেশের প্রায় সব জেলা থেকে ১৭০ টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রায় চার হাজার শিক্ষার্থীর মধ্যে থেকে প্রায় আটশ বিজয়ী শিক্ষার্থীদের নিয়ে জাতীয় জীববিজ্ঞান উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছিল ১৬ মার্চ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্জন হল প্রাঙ্গণে।

আঞ্চলিক, জাতীয় এবং প্রাক-নির্বাচনী – এই তিনটি ধাপে শেষ পর্যন্ত মোট ১৮ জন বিজয়ীকে বাছাই করে এবং বাছাইকৃত শিক্ষার্থীদের নিয়ে জীববিজ্ঞান বিষয়ক ব্যবহারিক প্রশিক্ষণ ও চূড়ান্ত বাছাইয়ের জন্য ২৩-২৬ মার্চ সাভারে অবস্থিত জাতীয় জীবপ্রযুক্তি ইন্সটিটিউটে অনুষ্ঠিত হয়েছিল চতুর্থ জাতীয় বায়োক্যাম্প। ক্যাম্পের মূল্যায়ন পরীক্ষায় আটজন শিক্ষার্থী অর্জন করে ‘মাস্টার ক্যাম্পার’ পুরস্কার। সেই আটজনের মধ্যে থেকে তিনদিনের বর্ধিত অনাবাসিক ক্যাম্পের মূল্যায়নে চূড়ান্তভাবে বিজয়ী চারজন শিক্ষার্থী হলেন: ইন্টারন্যাশনাল টার্কিশ হোপ স্কুলের মোঃ বায়েজিদ মিয়া, ভিকারুন্নিসা নূন স্কুল এন্ড কলেজের প্রকৃতি প্রযুক্তি, এসএফএক্স গ্রিনহেরাল্ড ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের অদ্বিতীয় নাগ এবং সরকারী এমএম সিটি কলেজের মো: তামজিদ হোসেন তানিম। তারা ইরানের তেহরানে ১৫-২২ জুলাই তারিখে অনুষ্ঠিতব্য ২৯ তম আন্তর্জাতিক জীববিজ্ঞান অলিম্পিয়াড ২০১৮ তে বাংলাদেশ দলের হয়ে অংশগ্রহণ করে । সাথে দলনেতা ও উপদলনেতা হিসেবে ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. রাখহরি সরকার এবং চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের অধ্যাপক ডা: গাজী মো: জাকির হোসেন।

এবছর এই প্রতিযোগিতায় বিশ্বের ৭১ টি দেশ অংশ নেয় । বাংলাদেশের পক্ষ থেকে এবছর প্রথমবারের মত পদক (ব্রোঞ্জ মেডেল) অর্জন করে অদ্বিতীয় নাগ। মাত্র তৃতীয়বারের প্রতিযোগী হিসেবে কোনো একটি আন্তর্জাতিক অলিম্পিয়াডে অংশগ্রহণকারী দেশের জন্য এ এক বিরল অর্জন। বাংলাদেশ জীববিজ্ঞান অলিম্পিয়াড এই সাফল্য উৎসর্গ করছে সকল জ্ঞানপিপাসু মানুষ ও বিজ্ঞান-সংশ্লিষ্ট আন্দোলনসমূহের কর্মীদের প্রতি। এবছর জীববিজ্ঞান অলিম্পিয়াডের সার্বিক কার্যক্রমে আংশিক অর্থায়ন করেছে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর এবং কারিগরি ও প্রকাশনা সহায়তা দিয়েছে ল্যাব বাংলা। কোনো নিয়মিত পূর্নাঙ্গ স্পন্সর না থাকা সত্ত্বেও জীববিজ্ঞান অলিম্পিয়াডের সাথে যুক্ত সকলের আন্তরিক প্রচেষ্টা এবং পরিশ্রমের ফলেই আমাদের এ অর্জন। আমরা আগামীতে আরো ভালো করতে পারবো যদি সার্বিক সহযোগিতা পাই। কেউ যদি আমাদের সফলতার সঙ্গী হতে চান এবং স্পন্সর হতে চান তবে তাঁকে/তাঁদেরকে সাদরে আমন্ত্রণ জানানো যাচ্ছে।

About Editor

Check Also

শেকৃবি উপাচার্য ও শেকৃবিসাসের শুভেচ্ছা বিনিময়

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক, শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় : শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শেকৃবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. কামাল উদ্দিন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *