Monday , December 17 2018
সর্বশেষ
Home / প্রথম পাতা / গাভীর ওলান প্রদাহ বা ম্যাস্টাইটিস প্রতিরোধে ৯টি উপায়

গাভীর ওলান প্রদাহ বা ম্যাস্টাইটিস প্রতিরোধে ৯টি উপায়

এগ্রিভিউ২৪ ডেস্ক: ম্যাস্টাইটিস বা ওলান প্রদাহ, বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে খুব পরিচিত এবং ভয়াবহ একটি রোগ যা গাভীর ওলানকে আক্রমন করে থাকে। ম্যাস্টাইটিস হলে গাভীর দুধ উৎপাদন কমে যায়, যা আর পূর্বের অবস্থায় ফেরত আসে না। অর্থ্যাৎ, খামারে ম্যাস্টাইটিসের আক্রমন মানেই খামারীর মাথায় হাত। প্রতিবছর অনেক গাভী এতে আক্রান্ত হয়ে দুধ উতপাদন এবং আর্থিক ক্ষতি হয়। এর ক্ষতিকর প্রভাব থেকে রক্ষার জন্য উত্তম হল এই রোগকে হতে না দেওয়া। ওলান প্রদাহ প্রতিরোধে গুরুত্বপুর্ণ পরামর্শ:

প্রতিরোধ :-
১. দুধ দোহনের পূর্বে দোহনকারীর হাত ও ওলান জীবাণুনাশক দিয়ে ভালভাবে পরিষ্কার করে নিতে হবে।
২. দুগ্ধবর্তী গাভীকে পরিষ্কার, পরিচ্ছন্ন ও শুষ্ক স্থানে রাখতে হবে।
৩. দুগ্ধবর্তী গাভীর ওলান যাতে আঘাতপ্রাপ্ত না হয় সে দিকে নজর রাখতে হবে।
৪. আক্রান্ত ওলান গরম ও ফোলা থাকলে ও ব্যাথাযুক্ত হলে প্রথমে বরফ বা ঠান্ডা পানি আক্রান্ত ওলানে ঢালতে হবে।
৫. ওলানেদুধ জমে গেলে মিল্ক সাইফন নামক যন্ত্র দিয়ে বের করে দেয়া যায়।
৬. আক্রান্ত গাভীকে আলাদা করে রাখতে হবে।
৭. দুধ দোহনের পর গাভীকে খাবার দিতে হবে। কেননা দুধ দোহণের পর হতে ২ ঘন্টা পর্যন্ত বাঁটের মুখ খোলা থাকে বিধায় অতি সহজে জীবাণু এ সময় বাঁটের মুখে প্রবেশ করে সংক্রমণ ঘটায়।
৮. দুধ দোহনের পর গাভীর বাঁটকে জীবাণুনাশক সলুশনে ডুবিয়ে জীবাণুমুক্ত করতে হবে।
৯. ওলান শক্ত হয়ে গেলে কর্পূর গুড়ো করে সরিষার তেলের সাথে মিশিয়ে বাটে লাগাতে হবে।

About Mostafizur Rahman

Check Also

সরিষা ক্ষেতে কৃত্রিম পদ্ধতিতে মধু চাষ করছেন নওগাঁর শিক্ষিত যুবকরা

দিগন্ত জুড়ে ফসলের মাঠ। যতদুর চোখ যায় শুধু হলুদ আর হলুদ রঙে মাখামাখি। এ যেন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *