Friday , August 17 2018
Home / প্রথম পাতা / একটি অনুযোগ ও অনুশোচনা

একটি অনুযোগ ও অনুশোচনা

ধান এবং আলু নয়! গরু ওয়ালা ও মুরগি ওয়ালা (অর্থাৎ আমাদের এই দুই ধরনের খামারি ভাইদেরকে বলছি) সকলকে এখন ভুট্টার চাষ করা উচিৎ। ভুট্টার ফল (বীজ) যেমন গরু খায়, তেমনি মানুষ এবং মুরগি সবাই খায়। গাছ‌ও খাবে গরুতে। ভীষণ পুষ্টিগুণ ভুট্টার দানায় এবং ভুট্টা গাছে (১২-১৩% আমিষ)। ভুট্টা চাষ এখন লাভজনক, ধানের চেয়ে বেশি, আলুর চেয়েও বেশি।

কিন্তু একটা দুঃখ‌ও আছে মনে! আমাদের দেশের মানুষ আসলে কি দুধ খেতে পছন্দ করেন? সে অভ্যাস আছে আমাদের? বাজারে যদি কেহ ফেনসিডিলের পাতিল নিয়ে বসেন তাহলে দেখা যাবে ১০ মিনিটের ভিতর তা সাবাড় হয়ে গেছে। কিন্তু গরম দুধ ফ্রি দিলেও খাবেন না সহজে। বরং সন্দেহ করবে ওটা ভেজাল না অন্য কিছু! আবার সেটাও তো মিথ্যা নয়!!! আমরা তো অহরহ দুধে পানি মিশিয়ে বিক্রি করার চেষ্টা করি নানান অজুহাতে! এটা কেমন দেশ?!! এদেশের কোন আগাও নাই মাথাও নাই! সবাই লাভ করতে চায়! কিন্তু সঠিক পথ দিয়ে সহসা খুব কম সংখ্যক লোক‌ই হাটতে চান! কিন্তু কেন??

অতএব, যা হবার তাই হচ্ছে এবং হবে। দুধ খেলে তো মানুষ মেধাবী হয়, বুদ্ধিমান হয়, শিক্ষিত হয়, সম্ভ্রান্ত হয়, ভদ্রলোক হয়। প্রাণীজ আমিষ ছাড়া কখনো কোন সভ্য জাতি গড়ে উঠতে পারে??!! এই সত্যটা মুসলমান ভাইয়েরা না বুঝলেও হিন্দু ভাইয়েরা ঠিকই বোঝেন!! (সঠিক বললাম কিনা আশেপাশে একটু খোঁজ নিয়ে দেখেন, ভুল বলে থাকলে মাফ করে দিয়েন) কেন এই জিনিসটা আমাদের হিন্দু ভাইদের মতো মুসলমান ভাইয়েরা খাওয়ার জন্য রপ্ত করতে পারলেন না!!? এই অংকটা আমি এখনও পর্যন্ত মিলাতে পারি নাই! কারণ আমি অংক বুঝিনা, বরাবরই অংকে আমি দুর্বল।

আজ আমি নিজেকেই নিজে বুকে হাত দিয়ে জিজ্ঞাসা করলাম, “সপ্তাহে আসলে আমি নিজে কয়টা ডিম খাই?” আমার ভিতর থেকেই তো সঠিক উত্তর আসছেনা। কতটুকু দুধ খাই প্রতিদিন? হিসাব মিলাতে পারছিনা! একটুখানি দুধ এবং প্রতিদিন কয়েকটি ডিম ক্রয় করে খাওয়ার মত টাকার খুবই কি অভাব সমাজের মানুষের? অন্যকে কি দোষ দিব? আমিতো নিজেও এই দোষে দোষী!! অথচ কাগজে-কলমে আমরা প্রতিনিয়ত অংক কষে হিসেব করছি, একজন সুস্থ মানুষকে প্রতিদিন কমপক্ষে একটি ডিম খাওয়া উচিত। না হলেও অন্ততঃ নূন্যতম সপ্তাহে দু’টি! গোশত খেতে হবে প্রতিদিন ১২০ গ্রাম। আর দুধ?! তার অবস্থান তো সবার উপরে!! মাত্র ২৫০ মিলি, প্রতিদিন! আপনি খেয়েছেন!? আমি খেয়েছি?! একদিকে এসমস্ত উপকরণের ঘাটতির কথা বলা হচ্ছে, অন্যদিকে এসমস্ত উপকরণের দিকে আমরা অধিকাংশরা কোন ভ্রুক্ষেপ‌ও করিনা! তাহলে কোনটা সঠিক? “অভাবের” না “স্বভাবের”?

আজ আমার এই লেখাটি যাঁরা পড়বেন দয়া করে তারা নিজেরাই নিজেদেরকে এই প্রশ্নটা করে দেখুনতো আপনি আজকে এই তিনটি উপকরণের কোনটি সঠিক পরিমাণে ভোগ করেছেন?!! তাহলেই আপনি নিজেই উত্তরটা খুঁজে পাবেন কেন আমাদের ডেইরি এবং পোল্ট্রি শিল্পের আজকে এই চরম দুর্দশা!!! আমি আপনি তো সমাজের সবচেয়ে সচেতন ব্যক্তি! তাদের যদি এই হাল হয় তাহলে অজ্ঞ মানুষদেরকে আমি কিভাবে দুষব? এখনো অনেক মানুষ আছেন নাক উঁচু করে দেশি মুরগির ডিম ও দেশী মুরগীর গোশত খুঁজে বেড়ান!! এটা দোষের কিছু নয়! কিন্তু খামারের মুরগি, ডিম ও ব্রয়লারের দোষ কোথায়? “আমরা যদি না জাগি মা কেমনে সকাল হবে”

গরুর দুধ কেন জায়গাভেদে ২৫ থেকে ৩০ টাকা প্রতি লিটার বিক্রয় হবে? আবার ওই একই দুধ ঢাকাতে কেন ৭০ থেকে ১০০ টাকা লিটার বিক্রি হবে? ডিমের কেন বাজার মূল্য পড়ে গেল? ব্রয়লার উৎপাদনকারীর মাথায় কেন হাত?!! তার অপরাধ কোথায়?? প্রান্তিক খামারিরা নিজেরা খেয়ে এবং না খেয়ে নিজের রক্ত ঝরিয়ে, শ্রম দিয়ে খামার পরিচালনা করেন, আমাকে-আপনাকে পুষ্টির যোগান দিতে!! সে কিনা আজ দিশেহারা! পাগলপ্রায়! ও ভাই আমরা কি সারা জীবন কবির ভাষায় বলতে থাকবো? “সবার আগে উঠব আমি রাত পোহালে তবে।” কিন্তু এই রাত যদি না শেষ হয়? বল তো কি হবে?? জানিনা অনামিশার রাত কবে শেষ হবে—-!?!????

 

ডা. মো. নূরুল আমীন,  Ex Divisional Deputy Director, Department of Livestock Services

About Abu Naser

Check Also

সিকৃবিতে পবিত্র ঈদ উল আযহার ছুটি শুরু

  অর্ঘ্য চন্দ, সিকৃবি প্রতিনিধি : সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে আগামী ১৯ আগস্ট থেকে শুরু হবে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *