Saturday , May 26 2018
সর্বশেষ
Home / প্রথম পাতা / ঝিনাইদহ সরকারী ভেটেরিনারি কলেজে কিছুক্ষণ…

ঝিনাইদহ সরকারী ভেটেরিনারি কলেজে কিছুক্ষণ…

গত ১৫ এপ্রিল চুয়াডাঙ্গা থেকে ঢাকায় ফিরছিলাম, ঝিনাইদহ সরকারী ভেটেরিনারি কলেজের ছোট ভাই ও এগ্রিভিউ২৪.কম এর ক্যাম্পাস প্রতিনিধি খালেকের বায়না তার সাথে একটু দেখা করে যেতে হবে, বেচারা ক্যাম্পাসের ফটকের সামনে অনেকটা সময় দাঁড়িয়ে আছে দেখা করবে বলে । হাতে সময় খুব একটা ছিলনা তবুও অনুরোধে ঢেঁকি গেলা বলতে যা বুঝায়, তাই ক্যাম্পাসের সামনে নামলাম । খালেকের অনুরোধ ছিল যে একটু দেখা করবে আর দেখা হবার পর তা আবদারে পরিনত হলো – তার ক্যাম্পাস টা একটু ঘুরে দেখতে হবে । মূল ফটকের বাইরে থেকে ৬ তলা একাডেমিক ভবন টা দেখা যাচ্ছিল, দেখে কেন যেন যুব উন্নয়নের ভবন মনে হচ্ছিল, তাই আগ্রহ বেড়ে গেল ক্যাম্পাস টা ঘুরে দেখার ।

ডান দিক দিয়ে অতিথিদের জন্য যে ভবন আছে সেটা দিয়ে শুরু করলাম, টিপটপ বিল্ডিং। এই ভবনে নাকি দেশের রাষ্ট্রপ্রধান থেকে শুরু করে মন্ত্রী এবং অন্যান্য অতিথিদের জন্য থাকার ব্যবস্থা আছে । ভেটেরিনারি ক্লিনিক্স টাও জমজমাট, এখানে বিনামূল্যে রোগীদের চিকিৎসা করা হয়। ক্লিনিক্সের পিছনে গবাদি প্রাণি ও ল্যাব এনিমেলের জন্য উন্নতমানের শেড রয়েছে। সামনে এগুতেই অত্যাধুনিক মেডিকেল সেন্টার ও অডিটোরিয়ামের নির্মানের কাজগুলি চোখে পড়ল । ১০ একরের একটা ক্যাম্পাস অথচ কতটা গোছানো – ছোট্ট কিন্তু খুব সুন্দর একটা মসজিদ আছে, ছেলেদের হলটাও গোছানো । অত্যাধুনিক একটি জিমনেশিয়াম আছে যেখানে প্রায় সব ধরনের সুযোগ সুবিধা আছে । খেলার মাঠের সংস্কার হচ্ছে, পাশেই একটি লেকের কাজ চলছে, লেকের চারপাশে অনেকগুলি স্থায়ী বেঞ্চের ব্যবস্থা আছে । সামনে এগুতে এগুতে চোখে পড়ল শিক্ষকদের কোয়ার্টার আর লেডিস হল – দুটোই খুব গোছানো । মেয়েদের হলের পেছনে অধ্যক্ষের বাসভবন । এইটুক পর্যন্ত মোটামুটি সব ক্যাম্পাসের সাথেই মিলে যায় কিন্তু ভালো লাগল একাডেমিক ভবনে যেয়ে । ও রাস্তার কথা বুলতে ভুলেই গিয়েছিলাম, ২ পাশে পরিকল্পিত ভাবে গাছ লাগানোতে রাস্তাটি চমৎকার লাগছিল ।

২ দিন পর প্রাণিসম্পদ মন্ত্রীর এই ক্যাম্পাসে আসার কথা তাই শিক্ষকদের খুব ব্যস্ত দেখাল । একাডেমিক ভবনের নিচতলাতে অত্যাধুনিক একটি লাইব্রেরি রয়েছে – পুরোপুরি গুছিয়ে উঠতে না পারলেও লাইব্রেরির প্ল্যানিং দেখে খুব ভালো লাগল । সম্পূর্ন শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত, ফ্রি ওয়াইফাই ব্যবস্থা আর সার্বক্ষনিক তত্ত্বাবধানের জন্য সিসি ক্যামেরা আছে, পাশাপাশি বসার এরেঞ্জম্যান্ট ছিল অসাধারন । লাইব্রেরিতে দেশি – বিদেশি প্রায় চার হাজারের ও বেশি বই রয়েছে। উপরের তলাগুলি ঘুরে দেখতে হবে, সামনে যেতেই দেখি ২ পাশে ২ টা সিঁড়ি – জানতে পারলাম একটি সিঁড়ি শিক্ষার্থীদের জন্য আর আরেকটি শিক্ষকদের জন্য । সিঁড়ি বেয়ে উপরে উঠছি, প্রতি তলায় উঠতেই কিছু লেখা চোখে পড়ল – কোরআনের আয়াত থেকে শুরু করে  নবীর বাণী, কবি সাহিত্যিক, রাষ্ট্রপ্রধান এবং মনীষীদের বাণী সবই চোখে পড়ল । প্রতি তলায় ক্লাসরুম, ল্যাব ও শিক্ষকদের চেম্বার দেখছি , এভাবে ৬ টি তলার সবগুলোতেই যাওয়া হলো। সব ধরনের চেষ্ঠাই করা হয়েছে ল্যাবগুলি উন্নতমানের করার জন্য যা ল্যাবে না গেলে বুঝতামই না । এখানকার প্রতিটি ক্লাসরুমই শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত, স্পিকার ও প্রজেক্টর আছে ক্লাসরুম গুলোতে । ক্লাস করতে করতে যদি পানির পিপাসা পায় তাহলেও প্রবলেম নেই, ব্যাগ থেকে পানির বোতল বের করার দরকার নেই, প্রতি ফ্লোরেই শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে পানির ফিল্টার জার এবং গ্লাস । ক্যাম্পাসের সুযোগ সুবিধার পাশাপাশি প্রাকৃতিক কিছু সুবিধাও পাচ্ছে শিক্ষার্থীরা, বিশাল বড় এক মৌচাক আছে একাডেমিক ভবনের বাইরের দিকে । পোলাপানের যখন মন চায় তখন নাকি একটু করে চাক ভেঙ্গে মধু নিয়ে যায় এখান থেকে ।

দুপুর বেলা প্রতিটা ফ্লোর ঘুরে কিছুটা ক্লান্ত, আবার সিঁড়ি বেয়ে নামতে হবে তাই খালেককে বলছিলাম যে কি দরকার ছিল কষ্ট করে এতটুকু উপরে তোলার; চট করে তার উত্তর – সমস্যা নাই ভাই, চলেন আপনাকে লিফটে করে নিয়ে যাই, শিক্ষকদের জন্য যে সিঁড়িটা রয়েছে সেটার পাশেই রয়েছে একটি লিফট !!!

ছোট্ট একটা ক্যাম্পাস; কলেজ হবার দরুন অনেক কিছু থেকেই হয়ত শিক্ষার্থীরা বঞ্চিত কিন্তু ক্যাম্পাসটিকে সর্বাত্মক সুন্দর রাখার এবং শিক্ষার্থীবান্ধব করার সব চেষ্ঠাই করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন । বাকি কাজটুকু শিক্ষার্থীদের, ভেটেরিনারি শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে নিজেদের মেধা ও দক্ষতা দিয়ে এদেশের প্রাণিসম্পদ সেক্টরে অবদান রাখবে এমনটা প্রত্যাশা এবং চাক ভেঙ্গে মধু না খাবার আফসোস নিয়েই শেষ করলাম ঝিসভেক ভ্রমন…

 

ডাঃ খালিদ হোসাইন
সম্পাদক
এগ্রিভিউ২৪.কম

About Editor

Check Also

বাকৃবিতে জুলাই-ডিসেম্বর সেমিস্টারে এম.এস. কোর্সে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে জুলাই-ডিসেম্বর সেমিস্টারে এম.এস. কোর্সে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়েছে ।  গত ১৭ মে বিশ্ববিদ্যালয়ের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *