Sunday , July 22 2018
সর্বশেষ
Home / কৃষি বিভাগ / কৃষিতে আমাদের দেশের নারীরা
Photo Courtesy: Ashik Masud (CPD)

কৃষিতে আমাদের দেশের নারীরা

নূর-ই-কুতুবুল আলম, খুবি থেকে: কৃষির সূচনা নারীদের হাত ধরেই হয়েছে, এটা নিয়ে কারোরই সন্দেহ নেই। পাঠ্যপুস্তক এবং ইতিহাস অধ্যয়ন করে আমরা জেনেছি প্রাচীন যুগে নারীর হাতে বোনা বীজ দিয়ে চাষাবাদের প্রচলন হয়েছে, এবং সেখান থেকেই কৃষিকাজের শুরু। দেশের ক্রমাবর্ধমান জনগোষ্ঠীর খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে কৃষির ওপর আলাদা গুরুত্ব দেয়া ছাড়া উপায় নেই।

গত নভেম্বরে (২০১৭ সাল) জাতিসংঘে National Adaptation Plans : Bulding Climate Resilience in Agriculture শীর্ষক একটি ফ্রি অনলাইন কোর্স করার সুযোগ পাই। মাসব্যাপী কোর্সটি ডিসেম্বরে গিয়ে শেষ হয়। চলমান সময়ে বিশ্বের জলবায়ু পরিবর্তনে কৃষির ওপর প্রভাব সম্পর্কে সম্যক ধারণা লাভ করি। পাশাপাশি জানার সু্যোগ হয় আফ্রিকার কৃষিতে নারীদের ভূমিকা। কোর্স করতে গিয়ে আবিষ্কার করি, আমাদের দেশের কৃষিকাজে জড়িত নারীরাও আফ্রিকার নারীদের মতোই বিভিন্ন সীমাবদ্ধতার শিকার হচ্ছে। নারী-পুরুষ বৈষম্য, কৃষির বাজারে নারীদের প্রাধান্য এবং যথাযথ প্রবেশাধিকার না দেয়া, পরিবারে পুরুষদের আধিপত্য ইত্যাদি আমাদের দেশের মতো আফ্রিকাতেও দেখা দিচ্ছে।

আইএলও (ILO) শ্রমশক্তি জরিপ ২০১৩ অনুযায়ী বাংলাদেশের ১ কোটি ২০ লাখ নারী শ্রমিকের মধ্যে ৭৪ শতাংশ অর্থাৎ প্রায় ৯২ লাখ নারীই কৃষিকাজ, মৎস্যচাষ ও সামাজিক বনায়নের সাথে জড়িত।  ২০১৬ সালের সিএসআরএল এর প্রতিবেদন অনুযায়ী, কৃষিখাতের ২১ ধরনের কাজের মধ্যে ১৭ ধরনের কাজেই গ্রামীণ নারীরা অংশগ্রহন করে। এই দুটি জরিপই বলে দেয়, এতো প্রতিকূলতার মাঝেও নারীরা কৃষিকাজে  টিকে থাকার সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছে।

সমাজকে সঠিকভাবে চালাতে হলে পুরুষের পাশাপাশি নারীরও অবদান থাকা আবশ্যক। আমরা যারা পাঠ্যপুস্তকে বেগম রোকেয়ার প্রবন্ধ পড়ে এসেছি বিষয়টা তারা খুব ভালো করেই দ্বিচক্রযানের দুই চাকার ব্যাপারটা সমাজের সাথে সহজেই মিলিয়ে নিতে পারবো। একটু বৃহৎ পরিসরে চিন্তা করে দেখা যাবে যে, নারীদের কৃষিতে যথাযথ অধিকার নিশ্চিতকরণ করলে পরিবার তথা সমাজের বেশি সমস্যা হবে না, বরং তাদেরই  আর্থিক এবং সামাজিক মান-মর্যাদা বৃদ্ধি পাবে। গৃহাস্থলীর কাজের পাশাপাশি নারীরা কৃষিকাজ করলে তাদের আয়ের উৎস সৃষ্টি হবে, কৃষিজাত পণ্য উৎপাদিত হবে এবং এটা দেশের কৃষি অর্থনীতিতেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

আমাদের দেশের সরকার কৃষিতে নারীদের অংশ নেবার ব্যাপারে উৎসাহ প্রদান করছে তবে বর্তমানে চাহিদার তুলনায় সেটা নিতান্তই অপ্রতুল, পাশাপাশি কাজ করছে বিভিন্ন এনজিও প্রতিষ্ঠান। দেশে পরিবর্তন আনতে বিশেষ করে শিক্ষিত শ্রেণির এগিয়ে আসাটা বেশি জরুরি। একমাত্র তারাই জনসাধারণের মাঝে সচেতনতা সৃষ্টি করে নিশ্চিত করতে পারে কৃষিতে নারীর অধিকার, যা পরবর্তীতে কৃষি সমৃদ্ধ বাংলাদেশের উত্থান ঘটাবে।

About Nur E Kutubul Alam

Project Developer | Reporter | Future Farmer | Businessman

Check Also

বাকৃবিতে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড, অনুষ্ঠান যথারীতি হবে

বাকৃবি প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) ৫৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান মঞ্চে শনিবার রাতে ভয়াভয় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *