Saturday , April 21 2018
Home / ক্যাম্পাস / হাবিপ্রবি’র শিক্ষার্থী বিপ্রা রায় বাংলাদেশের ইয়ুথ ডেলিগেশন এম্বাসেডর হিসেবে ভারতে যাচ্ছেন

হাবিপ্রবি’র শিক্ষার্থী বিপ্রা রায় বাংলাদেশের ইয়ুথ ডেলিগেশন এম্বাসেডর হিসেবে ভারতে যাচ্ছেন

হাবিপ্রবি প্রতিনিধি,বান্নাঃএগ্রিভিউ২৪ডটকম

হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃৃষি অনুষদের শিক্ষার্থী উৎকলিকা রায় বিপ্রা ‘বাংলাদেশ ইয়ূথ ডেলিগেশন ভিজিট টু ইন্ডিয়া’ এর প্রতিনিধিত্ব করতে ২৪ মার্চ সকাল ১০ টায় ভারতে যাচ্ছেন।বাংলাদেশ ও ভারতের সাংস্কৃতিক অঙ্গনে পারষ্পারিক সম্পর্ক উন্নয়নের জন্য ভারত হাই কমিশন ও বাংলাদেশ হাই কমিশনের যৌথ উদ্যোগে সারা দেশ থেকে ১০০ জনের এক প্রতিনিধি দলে মেধাবী ও চঞ্চল মেয়ে বিপ্রা রায় সুযোগ পেয়েছেন। এর আগে তিনি সহ হাবিপ্রবি থেকে তিনজন বাচাইপর্বে উত্তীর্ন হলেও উৎকলিকা রায়ই ভাইভা বোর্ডে নির্বাচিত হন।
বিপ্রা রায় এমন সুযোহ পেয়ে তিনি জানান-‘দেশের হয়ে ভারত ভ্রমন আমার জন্য এক আনন্দের নাম,দেশের সংস্কৃতি ভারতের কাছে তুলে ধরতে পারব এটাই আমার জন্য গর্বের। ”
উৎকলিকা রায় বিপ্রা হাবিপ্রবি’র কৃষি অনুষদের ২০১৫ শিক্ষা বর্ষের ছাত্রী।তিনি নীলফামারী জেলার সৈয়দপুর উপজেলার একজন বাসিন্দা।

ভারত সফরে ঝঁমকালো অনুষ্ঠানে সবার এক হাতে থাকবে বাংলাদেশের আরেক হাতে ভারতের পতাকা। দুই হাতে দুই পতাকা নিয়ে মঞ্চে একশ বাংলাদেশি তরুণ মাথা উঁচিয়ে বলবে আমরা তরুণ, আমাদের জয়গান বাংলা থেকে ভারতে। ২৪ মার্চ থেকে ১ এপ্রিল ভারত সফরে যাচ্ছেন এই ১০০ জন তরুণ। ২০১২ সাল থেকে ভারত সরকারের আমন্ত্রণে প্রতি বছর ১০০ জন তরুণ ভারত সফর করছে। এরই ধারাবাহিকতায় ২০১৮ সালেও ১০০ তরুণ প্রতিনিধিদল ভারত সফর করছেন।

এর আগে এই প্রতিনিধি দল ঢাকাস্থ ভারতীয় দূতাবাসে সমবেত হয়েছিলেন। এই প্রতিনিধি দলে রয়েছেন ছাত্র, শিক্ষক, ডাক্তার, প্রকৌশলী, সাংস্কৃতিক কর্মী, ব্যবসায়ী, সাংবাদিক, উপস্থাপক, আইনজীবী,ক্রীড়াবিদ, সহ অন্যান্য পেশার লোকও রয়েছে।

একশত তরুন কে নিয়ে আয়োজিত ‘ফ্ল্যাগ অফ’ অনুষ্টানে বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাই কমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলা ২০১৮ সফরগামী তরুণদের উদ্দেশ্যে বলেন,‘ বাংলাদেশী ১০০ তরুণের এটি ষষ্ঠ সফর। এই সফরকারীরাই প্রথম ভারতের প্রধানমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাৎতের সুযোগ পাচ্ছে। ‘ বাংলাদেশের প্রতিবেশী দেশ ভারত যুব বিষয়ে জোর দেয়ার কারণ সম্পর্কে হাই কমিশনার বলেন,‘ বাংলাদেশ ও ভারতের মোট জনগোষ্ঠীর ৬০ শতাংশ তরুণ। এই তরুণরাই আগামীর ভবিষ্যত। এখানে উপস্থিত তরুণরাই সামনে মিডিয়া, রাজনীতি, কূটনীতি, সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে নেতৃত্ব দেবে। ‘

আকর্ষণীয় এই সফরের ১০০ জনের বাছাই প্রক্রিয়া সম্পর্কে হাই কমিশনার বলেন,‘ সংবাদপত্র, ফেসবুক পেজ,ওয়েবসাইটে আমরা বিজ্ঞপ্তি দেয়া হয়। এবার হাজারের অধিক আবেদন জমা পড়েছিল। ২৫০ জন সাক্ষাৎকার দিয়েছিল। ২৫০ জন থেকে ১০০ জন চূড়ান্ত হয়। স্ব স্ব ক্ষেত্রে মেধা, যোগ্যতার ভিত্তিতেই ১০০ জন নির্বাচিত হয়েছে। ‘ নির্বাচন প্রক্রিয়া সহ এই সফরের বিভিন্ন কর্মকান্ডে সম্পৃক্ত ফাস্ট সেক্রেটারি রাজনৈতিক রাজেশ ইউকে, মিডিয়া ও কালচার কো-অর্ডিনেটর কল্যাণ কান্তি দাশকে বিশেষ ধন্যবাদ দিয়েছেন হাইকমিশনার।

ফ্লাগ অফ অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম। তথ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন,‘ প্রতি বছর ১০০ তরুণের এই সফর দুই দেশের সম্পর্ককে আরো গভীর করছে। এই সফরের মাধ্যমে আমাদের তরুণরা অনেক উপকৃত হচ্ছে। এই সফরের অভিজ্ঞতা স্ব ক্ষেত্রে প্রয়োগ করছে। ‘

ফ্লাগ অফ অনুষ্ঠানে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানও হয়। বিভিন্ন জন অভিজ্ঞতা ভাগাভাগি করেছেন।

১০০ জন তরুণ এবার দিল্লি,আগ্রা, মুম্বাইয়ে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক, ঐতিহাসিক স্থাপনা দর্শন ছাড়াও অনেক রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিবর্গের সাথেও দেখা করবেন।

About Mostafizur Rahman

Check Also

বিভিন্ন অপরাধ ও অভিযোগের বিষয়ে বাকৃবি শিক্ষক সমিতির বিবৃতি

বাকৃবি প্রতিনিধি: বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) সাম্প্রতিক সময়ে ঘটে যাওয়া বিভিন্ন অপরাধ ও অভিযোগের বিষয়ে এক …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *