Thursday , March 21 2019
সর্বশেষ
Home / প্রথম পাতা / পবিপ্রবির বরিশাল ক্যাম্পাসকে পূর্ণাঙ্গ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে রূপান্তরকরণ এখন সময়ের দাবী

পবিপ্রবির বরিশাল ক্যাম্পাসকে পূর্ণাঙ্গ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে রূপান্তরকরণ এখন সময়ের দাবী

তাহজীব মন্ডল নিশাত, পবিপ্রবিঃ জোবায়ের আহসান (ছদ্মনাম) এর মাস্টার্সে ভর্তির তারিখ ১৪ ও ১৫ ফেব্রুয়ারী । কিন্তু ভর্তি সংক্রান্ত বিভিন্ন প্রশাসনিক কাজে এরই মধ্যে কয়েকবার তাকে যেতে হয়েছে নিজস্ব ক্যাম্পাস ছেড়ে প্রায় ৫০ কি.মি দূরে পটুয়াখালীতে অবস্থিত মূল ক্যাম্পাসে। অন্যান্য প্রশাসনিক কাজ ছাড়াও তাকে মাস্টার্সে ভর্তি হতে হবে ওখানে গিয়েই। যাওয়ার একমাত্র যোগাযোগ মাধ্যম হলো মুড়ির টিনের মত কয়েকটি বাস। বাস থেকে নেমে আবার অটোযোগে পৌঁছাতে হয় গন্তব্যে। এজন্য একজন বেকার শিক্ষার্থীকে আসা যাওয়ায় ভাড়া বাবদ গুনতে হয় প্রায় ৫০০-৬০০ টাকা ।

টপ পজিশন থেকে ভার্সিটিতে ভর্তি হবার পরেও এরকম হাজারো দুঃখভরা গল্প নিয়েই দিন অতিবাহিত করছে পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (পবিপ্রবি) এর বরিশাল ক্যাম্পাসের শিক্ষার্থীরা। মূল ক্যাম্পাসের বাহিরে থাকায় সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত তারা। গত দুই মাস ধরেই বরিশাল ক্যাম্পাসের শিক্ষার্থীরা স্বতন্ত্র কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে রুপান্তরকরণের দাবীতে আন্দোলন করে আসছে, তাদের আন্দোলনের পিছনে মূল কারণসমূহঃ

  • বাংলাদেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলো মধ্যে পবিপ্রবি একমাত্র যার বহিঃস্থ ক্যাম্পাস আছে, যা কিনা দুই জেলায় প্রায় ৫০ কি.মি দূরত্বে অবস্থিত
  • প্রশাসনিকসহ নানা জটিলতা বিরাজমান, যেমন ৫ বছর বরিশাল ক্যাম্পাসে পড়াশুনা করলেও মূল সার্টিফিকেটসহ অন্যান্য সনদপত্র তুলতে মূল ক্যাম্পাসে যেতে হয়।
  • নাই কোন সুগঠিত ভবন, নতুন যা হয় তাও যথাযথ দৃষ্টিপাতের অভাবে কংকালসার হয়ে গড়ে ওঠে, পাশাপাশি মেইন ক্যাম্পাসের ক্যাম্পাস যেখানে পরিপাটি সেখানে বরিশাল ক্যাম্পাস যত্নাভাবে ভুতুড়ে লাগে।
  • টিএসসি, উন্নত লাইব্রেরী, আধুনিক ক্লাস রুম, উন্নত এবং সুসজ্জিত ল্যাব এর সবকিছু থেকেই বঞ্চিত শিক্ষার্থীরা।
  • সাংস্কৃতিক নানা প্রোগ্রাম এবং খেলার মাঠের খবর ফেসবুকে দেখেই তৃপ্তি মেটাতে হয় শিক্ষার্থীদের। খুব কম সময়েই সুযোগ হয় এসবে অংশগ্রহণ করার।
  • জাতীয় ও আন্তর্জাতিক নানা কর্মসূচি মূল ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিত হলেও বরিশাল ক্যাম্পাসের শিক্ষার্থীরা বরাবরই এতে অংশগ্রহণ করার সুযোগ পায় না, দূরত্বই যার মূল প্রতিবন্ধকতা।
  • বরিশাল বিভাগ এ একটি জেনারেল বিশ্ববিদ্যালয় ও একটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় থাকলে নেই কোনো কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় নাই। তাই বরিশালবাসীর পক্ষ থেকে এই দাবী জানানো হয়।

বরিশাল ক্যাম্পাসের প্রিয় মুখ আতিকুর রহমান মিলন agriview24.com কে জানান, “স্বতন্ত্র কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় করা এখন সময়ের দাবি; আমাদের ২ টা একাডেমিক বিল্ডিং, ১টা প্রশাসনিক বিল্ডিং, ২টা হল, ১টা জিমনেশিয়াম, ১টা লাইব্রেরি, ১টা অডিটোরিয়াম, ১টা টিচার্স কোয়াটার, ১টা বিশাল খেলার মাঠ, ৫০ জন টিচার, ১০০ জন কর্মকর্তা কর্মচারী আছে, শুধু প্রধানমন্ত্রী চাইলেই আমরা স্বতন্ত্র বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে পারি।”

কিছুক্ষন পর শুরু হচ্ছে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, জননেত্রী শেখ হাসিনার বরিশাল আগমন উপলক্ষ্যে আয়োজিত সমাবেশ । এই সমাবেশ থেকেই ঘোষণা আসুক পবিপ্রবির বরিশাল ক্যাম্পাসকে পূর্ণাঙ্গ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে রূপান্তরকরণ – এটিই বরিশালবাসীর প্রাণের দাবী, সময়েরও দাবীও বটে…

About Editor

Check Also

বাকৃবিতে ‘অপুষ্টি দূরীকরণে খাদ্য প্রকৌশলীর ভূমিকা’ শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

বাকৃবি প্রতিনিধি: বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) ‘অপুষ্টি দূরীকরণে খাদ্য প্রকৌশলীর ভূমিকা’ শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *