Sunday , April 22 2018
Home / ক্যাম্পাস / পোল্ট্রির বার্ড ফ্লু ও ফাউল কলেরা নিয়ে আঞ্চলিক কর্মশালা

পোল্ট্রির বার্ড ফ্লু ও ফাউল কলেরা নিয়ে আঞ্চলিক কর্মশালা

বাকৃবি প্রতিনিধি
বাংলাদেশে পোল্ট্রির বার্ড ফ্লু ও ফাউল কলেরা নিয়ন্ত্রণে প্রয়োজনীয় ভ্যাকসিন ও খামার ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করতে হবে। বর্তমানে আমাদের দেশে খামারীদের বার্ড ফ্লু ও ফাউল কলেরা নিয়ে শঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। শনিবার দুপুর ১১টায় ময়মনসিংহের টাউন হলে অবস্থিত এডভোকেট তারেক স্মৃতি অডিটরিয়ামে আয়োজিত এক আঞ্চলিক কর্মশালায় এসব কথা বলেন বিশেষজ্ঞরা। কর্মশালাটি আয়োজন করে ওয়ার্ল্ড পোল্ট্রি সায়েন্স এসোসিয়েশনের (ডাব্লিউপিএসএ) বাংলাদেশ শাখা।

কর্মশালায় ওয়ার্ল্ড পোল্ট্রি সায়েন্স এসোসিয়েশনের বাংলাদেশ শাখার সভাপতি শামসুল আরেফিন খালেদ, সহসভাপতি অধ্যাপক ড. মো. শওকত আলী, সাধারণ সম্পাদক মো. মাহাবুব হাসানসহ বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক , শিক্ষার্থী ও বৃহত্তর ময়মনসিংহের প্রায় চার শতাধিক প্রান্তিক খামারীরা উপস্থিত ছিলেন। কর্মশালায় বার্ড ফ্লু, ফাউল কলেরা ও নিয়ন্ত্রণ এবং খামার ও জীব নিরাপত্তা ব্যবস্থাপনা বিষয়ে তিনজন প্রধান আলোচক হিসেবে বক্তব্য প্রদান করেন।

কর্মশালায় বার্ড ফ্লু সম্পর্কে প্রাণি স্বাস্থ্য বিভাগের প্রধান ড. মো. গিয়াসউদ্দিন বলেন, ডিসেম্বর থেকে মার্চ মাসের ঠান্ডায় বার্ড ফ্লু এর প্রকোপ বৃদ্ধি পায়। বার্ড ফ্লু ২০০৭ সালে মহামারী আকারে আমাদের দেশে দেখা দেয়। এই রোগ নিয়ন্ত্রণের জন্য খামার জীবাণুমুক্ত, দ্রুত রোগ শনাক্ত ও আক্রাšত মুরগী নির্মূল করতে হবে। এছাড়াও রোগ নিয়ন্ত্রণে ভ্যাকসিন দিতে হবে। তবে ব্যবহৃত ভ্যাকসিনগুলো আমাদের দেশের জন্য যথেষ্ট কার্যকর নয়। এজন্য আমাদের দেশে প্রাপ্ত ভাইরাস সিড থেকে ভ্যাকসিন তৈরী করতে পারলে সেটা বেশি কার্যকর হবে। এ ব্যাপারে সরকারকে এগিয়ে আসতে হবে।

কর্মশালায় ফাউল কলেরা ও নিয়ন্ত্রণ সম্পর্কে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেটেরিনারি অনুষদের ডিন ও প্যাথলজি বিভাগের অধ্যাপক ড. প্রিয় মোহন দাস বলেন, বাংলাদেশে ফাউল কলেরার প্রকোপ খুব বেশি নয়। বর্তমানে শঙ্কিত হওয়ার মতো কিছু নেই। তবে যদি পোল্ট্রিতে ওই রোগ দেখা যায় তাহলে দ্রুত রোগ শনাক্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। এই রোগ পোল্ট্রির নাক, চোখ ও ক্ষতের মাধ্যমে ছড়ায়। খামারীদের সচেতনতা,খামার ব্যবস্থাপনা ও টিকা প্রদানের মাধ্যমে এই রোগ নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব।

এছাড়াও কর্মশালায় খামার ও জীব নিরাপত্তা ব্যবস্থাপনা প্রসঙ্গে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের পিএইচডি শিক্ষার্থী বিবেক চন্দ্র রায়।

প্রশ্নোত্তর ও উন্মুক্ত আলোচনার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপণী অনুষ্ঠিত হয়।

মো. শাহীন সরদার
বাকৃবি প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ।
০১৭৩ ৭৭২১৬০৩।

About Shahin Sardar

Check Also

শেকৃবি এলামনাই এসোসিয়েশন এর অভিষেক ও পুনর্মিলনী ২০১৮ অনুষ্ঠিত

নাজমুস সাকিব, শেকৃবি প্রতিনিধিঃ জাঁকজমক পূর্ণভাবে শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (শেকৃবি) এলামনাই এসোসিয়েশন’র অভিষেক ও পুনর্মিলনী …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *