Monday , December 17 2018
সর্বশেষ
Home / পাঁচমিশালি / “রিমাউন্ট ভেটেরিনারি এন্ড ফার্ম কোর (আর ভি এফ সি)”

“রিমাউন্ট ভেটেরিনারি এন্ড ফার্ম কোর (আর ভি এফ সি)”

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর একটি গুরুত্বপূর্ণ ও ঐতিহ্যবাহী কোর।যার মূলমন্ত্র হলো ‘পুষ্টি শক্তি নিরাপত্তা’।এই কোর সেনাবাহিনীর প্রয়োজনে সেনাবাহিনীর সৃষ্টি লগ্ন থেকে প্রতিষ্ঠিত হয়ে অদ্যবদি স্বগৌরবে এগিয়ে চলেছে। ভারতীয় উপমহাদেশে এই কোর তৎকালীন বৃটিশ সেনাবাহিনীতে আই আর ভি এফ সি এবং পাকিস্তান শাসনামলে পি আর ভি এফ সি হিসেবে পরিচিত ছিল যা ১৯৫২ সালে এ কোরে ভর্তি হওয়া একজন সৈনিকের সীটরোল পর্যালোচনায় এর অতীত ইতিহাসেরই প্রমাণ পাওয়া যায়।

লে: এ এম মাহবুবুর রহমান বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে কমিশন প্রাপ্ত প্রথম আরভিএফসি অফিসার! ১৯৭১ সালে তদানীন্তন পাকিস্তান আরভিএফ কোরের ১৮ জন বাংগালি সৈনিক নিজ নিজ ইউনিট পরিত্যাগ করে পালিয়ে এসে মুক্তিযুদ্ধে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেন।এই কোরের এক জন অফিসার, ২৩ জন জুনিয়র কমিশন্ড অফিসার/আদার র্যংক্স এবং ০২ জন বেসামরিক কর্মচারী মুক্তিযোদ্ধার নাম সরকারী ভাবে তালিকাভুক্ত রয়েছে।

১০ জানুয়ারি, ১৯৭২ সালে অত্যন্ত অল্প সংখ্যক জনবল (১ জন অফিসার, কতিপয় সৈনিক ও অসামরিক কর্মচারী) নিয়ে স্বাধীন বাংলাদেশে ঢাকার অদূরে সাভারে আরভিএফসি এর প্রথম ইউনিটের যাত্রা শুরু হয়। এরপর,২৮ অক্টোবর, ১৯৭৮ সালে পাকিস্তান হতে প্রত্যাগত ৭৮ জন সদস্য নিয়ে এই কোরে আরভিএফ ডিপো নামে আর একটি ইউনিট চালু হয়। এই ডিপো তার নিজস্ব কর্মকান্ডের পাশাপাশি কোরের সকল সামরিক ও অসামরিক সদস্যের জন্য বিভিন্ন প্রশিক্ষণ কোর্স ও ক্যাডার পরিচালনা করে থাকে। তাছাড়া এই ইউনিট ঘোড়া ও সামরিক কুকুর (Military War Dog) এর প্রজনন এবং সেগুলোর বিভিন্ন প্রশিক্ষণ প্রদান করে থাকে। এই কোরের বিভিন্ন প্রশিক্ষণে ভারত, নেপাল, মালদ্বীপ, যুক্তরাষ্ট্র, শ্রীলংকা, ফিলিস্তিন, নাইজেরিয়া, সুদান প্রভৃতি দেশের বিভিন্ন পদমর্যাদার সেনা অফিসারগণ অংশগ্রহণ করে থাকেন। এছাড়াও বিজিবি,র্যাব, নৌবাহিনী, আনসার ভিডিপি এর বিভিন্ন পদমর্যাদার অফিসার ও সদস্যগণ প্রতিবছর প্রশিক্ষণ নিয়ে থাকেন।

বর্তমানে এই কোরের মোট ১৫ টি ইউনিট রয়েছে। “পুষ্টি শক্তি নিরাপত্তা “এই মূলমন্ত্রে দীক্ষিত হয়ে আরভিএফসি ক্রমশ একটি উন্নত, পেশাদার এবং সক্ষম কোর হিসেবে গড়ে উঠেছে। এই কোর শান্তিকালীন সময়ে সিএমএইচ এর রোগীদের জন্য তরল দুগ্ধ ও বাটার সরবরাহ এবং প্রতিরক্ষা বাহিনীতে কর্মরত সদস্যদের মাঝে দুগ্ধ ও দুগ্ধজাত পণ্য সরবরাহের মাধ্যমে পুষ্টি যুগিয়ে থাকে। এই কোর এর প্রশিক্ষিত সামরিক কুকুরের মাধ্যমে ভিভিআইপি (VVIP) গণের নিরাপত্তা প্রদান,অনুষ্ঠানস্থলে স্যুইপিং,যুদ্ধ বা অপারেশনাল এলাকায় টহল ও প্রহরীর দায়িত্ব পালন, মাইন/বিস্ফোরক/গোলাবারুদ/অস্ত্র খুঁজে বের করা, দুর্যোগময় পরিস্থিতিতে হতাহতদের সনাক্ত করা এবং ক্ষেত্র বিশেষ উদ্ধার ততপরতায় অংশগ্রহণ ইত্যাদি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং স্পর্শকাতর কাজ সমাধা করে থাকে।এছাড়া এই কোরের প্রশিক্ষিত সামরিক কুকুর জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে যুদ্ধ বিধ্যস্ত এলাকায় ইঞ্জিনিয়ার্স কোরের ডিমাইনিং টিমের সাথে মাইন অপসারণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে।
সেনাবাহিনী ও জাতীয় পর্যায়ের কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠান, সমরাস্ত্র প্রদর্শনী, আন্তর্জাতিক ও জাতীয় ক্রীড়া প্রতি্যোগিতা ও বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সম্মেলনে ঘোড়া ও প্রশিক্ষিত সামরিক কুকুর অংশগ্রহণের মাধ্যমে ঐসব অনুষ্ঠানের সৌন্দর্য্য ও নিরাপত্তা সহায়ক ভূমিকা পালন করছে।

এই কোরের অফিসার, জেসিও / ও আর গণ পিজিআর (প্রেসিডেন্ট গার্ড রেজিমেন্ট) ও র্যাব এ সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করছেন। প্রতি বছর জাতিসংঘ মিশনে সফলতার সাথে অংশগ্রহণ করে দেশের জন্য বয়ে আনছেন প্রভূত সম্মান। এই কোরের এক জন অফিসার সম্প্রতি “আর্মি কমান্ডো কোর্স” এর মতো দু:সাহসী প্রশিক্ষণ দক্ষতার সাথে সম্পন্ন করেছেন।

নিরাপত্তার ক্ষেত্রে আপোষহীনতার কারণে এই কোরের গুরুত্ব ক্রমাগত বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং নতুন নতুন ইউনিট ও পদ তৈরি হচ্ছে। শান্তি ও যুদ্ধ কালীন – উভয়ক্ষেত্রেই সর্বোচ্চ ত্যাগ ও সেবার ব্রত নিয়ে কাজ করে যাওয়া “আরভিএফসি”, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর এক অনন্য ও আবশ্যকীয় সম্পদ।

 

লিখেছেন: লেফটেন্যান্ট ডা. আহমেদ সাদেক

About Anik Ahmed

Check Also

কেঅাইবি নির্বাচন স্থগিত

এগ্রিভিউ নিউজ ডেস্ক: বহুল প্রত্যাশিত কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশ (কেঅাইবি) এর ২০১৯-২০ মেয়াদের নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে। …

6 comments

  1. MD OLIUR RAHMAN

    I want to join in rvfc…how can I apply for this?

  2. what’s the requirement for being RVFC

  3. Dr.Md.Azhar Uddin

    Where we can get form and how we can know about form opening?
    Thanks

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *